Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
Home / অন্যান্য / সম্পাদকীয় ও মতামত / আবার তুমি আসবে ফিরে আমায় কথা দাও, হে প্রবাসী

আবার তুমি আসবে ফিরে আমায় কথা দাও, হে প্রবাসী

জীবিকার তাগিদে প্রতিবছর পরদেশে পাড়ি জমাচ্ছে হাজারো শিক্ষিত এবং অশিক্ষিত যুবক। আর জীবিকার সন্ধান করতে করতে কখন যে সেই যুবকের বিয়ের বয়স পার হয়ে যায় টেরই পায়না। এক সময় মাস দুই তিনেক ছুটি নিয়ে দেশে এসে পাত্রী খুঁজতে খুঁজতে ছুটিগুলো শেষ হয়ে আসে। তড়িগড়ি করে বিয়ের কাজ সারতে হয়।

অবশেষে প্রবাসী ছেলেটি বিয়ে করে। কিন্তু নতুন বউএর হাতের মেহেদীর রঙ মুছে যাওয়ার আগেই ছেলেটিকে পাড়ি দিতে হয় জীবিকা নামক কুৎসিত সোনার হরিণের সন্ধানে। সময়টুকু তখন খুব ক্রন্দনদায়ক। আমাদের সমাজে এগুলো অনেকটা লজ্জাকর হলেও, আমি দেখেছি এমন অনেক নারীকে আড়ালে কাঁদতে।

একটু একটু করে সময় পার হয়ে যায় নতুন বউ আর নতুন থাকেনা সে স্বামীর না থাকা মেনে নিয়ে এক সংসারের দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে সবকিছু ভুলে যায়। কিছুদিন পরে নিজের মধ্যে নতুন একজনকে খুঁজে পায়, পরিবারে সবাই অনেক খুশি হয় শুধু অপুর্ণতা থাকে সে প্রবাসী মানুষটার, স্ত্রীর এমন সময়ে পাশে না থাকতে পারার অপূর্ণতা।

একদিন প্রবাসী ছেলেটি বাবা হয়, একটা ফুটফুটে সন্তানের বাবা। প্রবাসে বসে সন্তানের একটা ছবির জন্য প্রবাসী বাবার কি যে  অপেক্ষা। সন্তান বাবা কে ছাড়া মায়ের ছায়াতলে বড় হয়। ধীরে ধীরে বড় হয় আর বাবার আলিঙ্গনে আসতে ব্যাকুল হয়ে যায়।

তিন কিংবা চার কখনো সেটা দশ বছরে পরিণত হয়, তারপর বাবা আসে সন্তানকে প্রাণ ভরে আদর করে। সেই দুই বা তিন মাস পর আবার সবাইকে কাঁদিয়ে ফিরে আসে বিদেশে।এভাবেই লাখো প্রবাসীর সংসার চলছে। প্রবাসী মানুষটা পরিবারের কোন বিপদে আপদে পাশে থাকতে পারেনা, থাকতে পারেনা খুশির মুহুর্তে।

প্রবাসে কেউ শখ করে যায়না জীবিকার তাড়নাই প্রবাসে যেতে বাধ্য করে।এই প্রবাসীর কল্যাণে দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি হচ্ছে দিনের পর দিন। প্রবাসীরা বিভিন্ন উৎপাদনমুখী খাতে অর্থ বিনিয়োগ করছে। তাই প্রবাসীকে ঘৃনা নয়,ভালবাসুন, শ্রদ্ধা করুন। আপনার পরিবার বা আত্বীয়স্বজন কেউ প্রবাসী হলে তার খোজ-খবর রাখুন। মাঝে মধ্যে যোগাযোগ করুন। প্রবাসী পরিবারের যে কোন দুঃসময়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন।

 

সব সময় আপডেট নিউজ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন- সবুজ বিডি ২৪

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*