শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯, ০১:৪৩ অপরাহ্ন

জামালগঞ্জের গজারিয়া স্লইচ গেইট বন্ধ , নিস্কাশন হচ্ছে না পাকনার হাওরের পানি। জলাবদ্ধতায় নিমজ্জিত আছে হাজার হাজার হেক্টর জমির ফসল

ছবিঃ জামালগঞ্জের গজারিয়া স্লইচ গেইট বন্ধ , নিস্কাশন হচ্ছে না পাকনার হাওরের পানি।

জামালগঞ্জ (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি:
গজারিয়া স্লুইচ গেইট বন্ধ থাকায় ও পশ্চিম অংশে খনন না করায় জামালগঞ্জের পাকনার হাওরের পানি নিঃস্কাশন হচ্ছে না। জলাবদ্ধতায় নিমজ্জিত আছে হাজার হাজার হেক্টর জমির ফসল। সম্প্রতি ফেনারবাকঁ ইউনিয়ন পরিষদের বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কয়েকজন ইউপি সদস্য পাকনার হাওরের ডালিয়া স্লুইচ গেইট সংলগ্ন এলাকা ও চুনাইর মুখ খনন করার জন্য শ্রমিকের কাজ করলে কিছুটা পানি নিস্কাশন হলেও গজারিয়া স্লুইচ গেইট বন্ধ থাকায় ও পশ্চিম অংশে খনন না করায় হাওরের পানি আটকে আছে, ফলে পাকনার হাওরের পূর্বাংশে ভিমখালী ইউনিয়নের জমি ও পাকনার হাওরের উত্তরাংশে জামালগঞ্জ সদর ইউনিয়নের জমি সহ অনেক জমি অনাবাদী থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। অতিসত্বর গজারিয়া স্লুইচ গেইট খুলে দিয়ে পশ্চিম অংশে খনন করে সুরমা নদীতে পানি নিস্কাশনের সুযোগ করে না দিলে ৫ হাজার জমির ফসল অনাবাদী রয়ে যাবে।

এ ব্যাপারে ফেনারবাঁক ইউপি চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু তালুকদার বলেন- সরকারি ভাবে ও স্বেচ্ছা শ্রমের ভিত্তিতে , পরিষদের মাধ্যমে খননের জন্য দ্রুত পদক্ষেপ নেব। ভীমখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ দুলাল মিয়া বলেন- অতিসত্বর আমরা দুই চেয়ারম্যান মিলে গজারিয়া স্লুইচ গেইট খোলার ও পশ্চিম অংশ খনন করে পানি নিস্কাশনের পদক্ষেপ নেব। হাওর বাঁচাও , সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলন এর জামালগঞ্জ শাখার সভাপতি ইউসুফ আল- আজাদ বলেন, প্রতি বছরই কানাইখালীর খনন ও পাকনার হাওরের জলাবদ্ধতা নিয়ে সভা সমাবেশ হয়। কিন্তু এর কোনো স্থায়ী সমাধান হয় না, চলতি বছরে যাতে ধান রোপন করতে পারে সেজন্য গজারিয়া স্লুইচ গেইট খোলার ও পশ্চিম অংশ খনন করার জন্য সরকারের পদক্ষেপ জরুরী , অন্যথায় আগামী বছর না খেয়ে মরবে কৃষক।

 

সব সময় আপডেট নিউজ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন- সবুজ বিডি ২৪

সংবাদটি শেয়ার করুন:

© All rights reserved © 2018-2019  Sabuzbd24.Com
Design & Developed BY Sabuzbd24.Com