Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
Home / রাজনীতি / জামায়াতের সঙ্গে আমরা রাজনীতি করবো না: ড.কামাল
ড. কামাল হোসেন (ফাইল ছবি)

জামায়াতের সঙ্গে আমরা রাজনীতি করবো না: ড.কামাল

নিজস্ব প্রতিনিধি:

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ‘জামায়াতকে সঙ্গে নিয়ে আমরা কোনও রাজনীতি করবো না। অতীতেও করিনি, এখনও করছি না, ভবিষ্যতেও করবো না।’

শনিবার (১২ জানুয়ারি) বিকেলে মতিঝিলে গণফোরাম কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে ৩০ ডিসেম্বরের জাতীয় নির্বাচন নিয়ে বিভিন্ন জেলা থেকে আসা গণফোরাম নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন ড. কামাল। বৈঠকে নেতৃবৃন্দ নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকার সার্বিক পরিস্থিতি ও নিজেদের অভিজ্ঞতা খোলামেলাভাবে তুলে ধরেন।

এর পর সংবাদ সম্মেলনে ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘আমি এর আগেও কয়েক বার বলেছি, জামায়াতকে ধানের শীষ প্রতীক দেয়া হবে জানলে আমি ঐক্য করতাম না। জামাতের সঙ্গে ঐক্য করে অনিচ্ছাকৃত ভুল হয়েছে। জামায়াতের সঙ্গে রাজনীতি কখনও করিনি, ভবিষ্যতেও করব না। আমি যখন ঐক্যে সম্মতি দিয়েছি তখন জামায়াতের কথা আমার জানা ছিল না। এটা ঐক্যফ্রন্ট গঠনে ভুল ছিল।’

এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘জামায়াতকে কেন ধানের শীষ প্রতীক দেয়া হল- বিএনপির কাছে আমি এর ব্যাখ্যা চেয়েছি। আগামীতেও এ বিষয়ে ব্যাখ্যা চাওয়া হবে।’ 

এছাড়াও তড়িঘড়ি করে ঐক্যফ্রন্ট গঠন করে যেসব ভুলত্রুটি হয়েছে তা সংশোধন করা হবে বলেও জানান ড. কামাল।

বিএনপিকে জামায়াতের সঙ্গ ছাড়তে ঐক্যফ্রন্ট কোনও ধরনের চাপ সৃষ্টি করবে কিনা- জানতে চাইলে ড. কামাল সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমিতো মনে করি, জামায়াত ছেড়ে আসতে বিএনপিকে চাপ দেয়া যেতে পারে।’ 

বিএনপির সঙ্গে জামায়াত থাকলে ভবিষ্যতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থাকবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি পরিষ্কার ভাষায় বলতে চাই, জামায়াত নিয়ে কোনও রাজনীতি নয়, অবিলম্বে এ বিষয়ে সুরাহা চাই।’

সদ্য অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে ড. কামাল বলেন, ‘দেশের মানুষের মধ্যে মৌলিক বিষয়ে কিন্তু ঐক্যমত্য আসেনি। একটা সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের সংসদ গঠিত হোক, এটা নিয়ে কোনও দ্বিমত নেই। কিন্তু ৩০ তারিখে যা ঘটেছে সেটা তো আপনারা পত্র-পত্রিকায় পাচ্ছেন।’

দেশের স্বার্থে সংবিধানের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সরকার সিদ্ধান্ত নিতে চাইলে সেটা পারে বলে দাবি করে তিনি বলেন, ‘তারা (সরকার) চাইলে দুই তিন মাস বা তার চেয়ে কম সময়ের মধ্যেও একটা অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠান করতে পারে।’

এছাড়া আগামী ২৩ ও ২৪ মার্চ ঢাকায় গণফোরামের জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানান ড. কামাল হোসেন।

গণফোরামের বিজয়ী দুই প্রার্থীর শপথ নেয়া না নেয়া প্রসঙ্গে ড. কামাল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের দুই বিজয়ী প্রার্থী শপথ নেবেন কি নেবেন না এটা নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবো।’

এসময় তিনি বিতর্ক না বাড়িয়ে সকলের সমান সুযোগ নিশ্চিত করে সুন্দর নির্বাচনের দাবি জানান।

লিখিত বক্তব্যে গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু বলেন, ‘তাড়াতাড়ি জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট করতে গিয়ে অনিচ্ছাকৃত কিছু ভুলত্রুটি হয়েছে। এসব সংশোধন করে ভবিষ্যতে সংগঠিতভাবে ঐক্যফ্রন্ট গঠন করা হবে।’ 

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, গণফোরাম নেতা অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী ও রেজা কিবরিয়া প্রমুখ।

সব সময় আপডেট নিউজ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন- সবুজ বিডি ২৪

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শোভনকে ডেকে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনের ফলাফলকে কেন্দ্র করে চলা নানা নাটকীয়তার মধ্যে ...