Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
Home / আন্তর্জাতিক / ট্রাম্পকে রক্তে রঞ্জিত করার হুঁশিয়ারি মাদুরোর!

ট্রাম্পকে রক্তে রঞ্জিত করার হুঁশিয়ারি মাদুরোর!

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:

তোপের মুখে থাকা ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে উচ্ছেদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বীকৃতি দেওয়াকে নোংরা সাম্রাজ্যবাদী ষড়যন্ত্র হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। তিনি ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে বলন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট যদি তাকে উৎখাতের প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখেন তাহলে তাকে রক্তে রঞ্জিত হয়ে হোয়াইট হাউস ছাড়তে হবে বলে স্প্যানিশ সাংবাদিক জোরদি ইভোলি’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এমন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে নিকোলাস মাদুরো বলেন, আপনি ‘থামুন। থামুন, ট্রাম্প! এখানেই থেমে যান! আপনি এমন ভুল করছেন যা আপনার হাতকে রক্তে রঞ্জিত করবে। রক্তের দাগ নিয়ে আপনাকে প্রেসিডেন্সি ছাড়তে হবে। কেন আপনি ভিয়েতনামের পুনরাবৃত্তি চাইছেন?’

এদিকে ভেনেজুয়েলায় আট দিনের মধ্যে নতুন নির্বাচন দিতে ইউরোপের কয়েকটি দেশ যে আল্টিমেটাম দিয়েছে তাও নাকচ করে দিয়েছেন মাদুরো। তিনি বলেন, আমরা কারও কাছ থেকে আলটিমেটাম গ্রহণ করি না। আমি এই মুহূর্তে নির্বাচনের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করছি। ২০২৪ সালে নির্বাচন হবে। ইউরোপ কী বললো তাকে আমরা গোণায় ধরি না।

মাদুরো বলেন, আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে আপনি আল্টিমেটামের ওপর ভর করতে পারেন না। এসব ঔপনিবেশিক সময়কালের জন্য প্রযোজ্য।

নিজের রাজনৈতিক গুরু হুগো শাভেজের মৃত্যুর পর ২০১৩ সালে ভেনেজুয়েলার ক্ষমতায় আসেন বামপন্থী রাজনীতিক নিকোলাস মাদুরো। ভেনেজুয়েলা ছেড়ে অন্য কোথাও যাওয়ার পরিকল্পনা নেই বলেও জানান এই রাজনীতিক।

ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট বলেন, উত্তর আমেরিকার সাম্রাজ্যবাদীরা হামলা চালালে আমাদের নিজেদের রক্ষা করতে হবে। দেশকে আমরা তাদের হাতে ছেড়ে দেবো না।

তিনি বলেন, ভেনেজুয়েলায় কোনও মানবিক সংকট নেই। এখানে যা রয়েছে তা হচ্ছে রাজনৈতিক সংকট।

ভেনেজুয়েলার স্বঘোষিত অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুইদো’কে অভ্যুত্থানের কৌশল থেকে সরে আসারও আহ্বান জানান মাদুরো। তিনি বলেন, আপনি কি করছেন; সে সম্পর্কে সাবধানে চিন্তা করুন।

বর্তমান সংকট যুদ্ধ পর্যন্ত গড়ানোর আশঙ্কা করছেন কিনা; এমন প্রশ্নের উত্তরে মাদুরো বলেন, সবকিছু নির্ভর করছে সাম্রাজ্যবাদী শক্তি এবং তার পশ্চিমা মিত্রদের উন্মত্ততা ও আগ্রাসনের ওপর। এটা আমাদের ওপর নির্ভর করছে না। তবে নিজেদের অধিকার রক্ষায় ভেনেজুয়েলাও প্রস্তুতি নিচ্ছে।

এর আগে সিবিএস টেলিভিশনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ভেনেজুয়েলায় সামরিক হস্তক্ষেপের বিষয়টি তার বিবেচনার মধ্যে রয়েছে। দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর বৈঠকে বসার আহ্বান তিনি ফিরিয়ে দিয়েছেন।

ট্রাম্পের হুঁশিয়ারির বিপরীতে গত কয়েকদিন ধরে প্রতিদিনই ভেনেজুয়েলার সামরিক ঘাঁটিগুলো পরিদর্শন করছেন মাদুরো। একটি নৌ ঘাঁটি পরিদর্শনে গিয়ে তিনি বলেন, আমরা কী উপনিবেশে পরিণত হতে পারি?

২০১৯ সালের জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হয়েছে ভেনেজুয়েলার নির্বাচন। তাতে জিতে দ্বিতীয় মেয়াদে দেশটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন বামপন্থী প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। কিন্তু বিরোধী দলসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কারচুপির অভিযোগ তুলেছে। বিরোধীদের এমন দাবির সঙ্গে যুক্ত হয়েছে অর্থনৈতিক মন্দা। অর্থনৈতিক সংকটে জনগণের পুঞ্জিভূত ক্ষোভ শেষ পর্যন্ত পরিণত হয় সরকারবিরোধী বিক্ষোভে। আর ব্যাপক এই বিক্ষোভের জেরেই গত ২৩ জানুয়ারি নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন বিরোধী দলীয় নেতা জুয়ান গুইদো। কয়েক মিনিটের মাথায় তাকে ‘স্বীকৃতি’ দেয় যুক্তরাষ্ট্র। এক বিবৃতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ‘ভেনেজুয়েলার ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির প্রেসিডেন্ট জুয়ান গুইদোকে আমি দেশটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্বীকৃতি দিচ্ছি।’

মাদুরোর পক্ষে দাঁড়িয়েছে চীন ,রাশিয়া ও তুরস্কের মতো দেশ। অন্যদিকে বিরোধী নেতা জুয়ান গুইদোকে সমর্থন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, এমনকি ইউরোপীয় পার্লামেন্ট। এমন পরিস্থিতিতেই ট্রাম্প ও মাদুরোর পক্ষ থেকে পাল্টাপাল্টি হুঁশিয়ারি উচ্চারণের ঘটনা ঘটেছে। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান।

সব সময় আপডেট নিউজ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন- সবুজ বিডি ২৪

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ইসরায়েলিদের রক্ষায় বেপরোয়া ট্রাম্প- আদালতেও তোলা যাবে না!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আর্ন্তজাতিক অপরাধ আদালতের বিচার থেকে (আইসিসি) রেহাই পেতে চাওয়া যোগ্য ইসরায়েলি ও আমেরিকানদের ...