Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
Home / ক্রাইম নিউজ / পীরগঞ্জে অনিয়ম দূর্নীতিতে ভরপুর- পল্লী মঙ্গল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়

পীরগঞ্জে অনিয়ম দূর্নীতিতে ভরপুর- পল্লী মঙ্গল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়

পীরগঞ্জ, (রংপুর) প্রতিনিধি:
রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার ১৪ নং চতরা ইউনিয়নের পল্লী মঙ্গল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টিতে বিভিন্নি প্রকার অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

 

সরেজমিনে গত ১১ মার্চ (সোমবার) ১১:৫০ মিনিটে বিদ্যালয়টিতে গেলে, প্রধান শিক্ষককে অনুপস্থিত পাওয়া যায়।

 

কথা হয় উক্ত বিদ্যালয়ের বাকী তিন সহকারী শিক্ষিকাদের সাথে। তারা জানান বিদ্যালয়ে মোট শিক্ষক ৪জন। এইদিন উপস্থিত ৪ জন কিন্তু প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকলেও হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর আছে।

 

সহকারী শিক্ষিকা মোছাঃ উম্মে কুলসুম মেরিনা জানান, প্রধান শিক্ষক প্রতিনিয়িত বিদ্যালয়ে আসেন এবং হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে নানা রকম অজুহাত, দেখিয়ে চলে যান। বিদ্যালয়ের বিভিন্ন ডাইরিতে কোথায় যাচ্ছেন তাও লিপিবদ্ধ করেন।

এমনি ভাবে আজও তিনি পীরগঞ্জে শিক্ষা অফিসারের কাছে চলে গেছেন, অথচ পীরগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসারের নোটিশ বোর্ডে দেখলে ব্যপারটি স্পষ্ট হয়ে যায়। নোটিশ বোর্ডে উল্লেখ আছে , কোন শিক্ষক সপ্তাহের বৃহস্পতিবার বেলা ২:৩০ মিনিটের আগে এবং সপ্তাহের অন্য কর্মদিবস বিকাল ৪:০০ ঘটিকার পূর্বে পূর্বানুমতি ব্যতিত শিক্ষা অফিসে আসা যাবে না।

 

প্রধান শিক্ষকের রুমে প্রবেশ করলে, দেখা যায় সব কিছু অগোছালো, সেখানে চোখে পড়ে গামছা, গেঞ্জি, তোয়ালি, ব্যাগ, চাদরসহ অনেক কিছু।

সহকারী শিক্ষিকা মোছাঃ উম্মে কুলসুম মেরিনার সাথে কথা হলে কথার এক পর্যায়ে তিনি বলেন, আমদের প্রধান শিক্ষক সরকারী অনুদানের টাকা দিয়ে পকেট ভর্তি করেন।

 

গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর সরকারী ভাবে ৩০,০০০ (ত্রিশ হাজার) টাকা কি কাজে ব্যবহৃত হয়েছে জানতে চাইলে তিনি ভাউচার দেখিয়ে বলেন, প্রধান শিক্ষকের মনগড়া ভাউচার। এখানে যে খরচের কথা উল্লেখ আছে তারমধ্যে শিক্ষকগণের পিকনিকের ২৫০০ টাকা ছাড়া বাকী অধিকাংশ টাকা তার পকেটে ভরে।

স্লিপের ৪০,০০০ (চশ্লিশ হাজার) টাকার ব্যপারে জানতে চাইলে, তিনি এই টাকার খরচের ভাউচারকেও অধিকাংশ ভুয়া বলে উল্লেখ করেন।

এলাকাবাসী নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক কয়েকজন জানান, প্রধান শিক্ষক প্রতিদিন স্কুলে এসে নানন তাল বাহানায় চলে যান।

 

এছাড়া, গত কিছু দিন আগে বিদ্যালয়ের গাছ কেটে পকেট ভর্তির সময় এলাকাবাসীর বাধার মূখে উপজেলা প্রশাসনের দক্ষ তৎপরতায় গাছগুলো থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এর পর তিনি আবারো শুকনো গাছ দেখিয়ে নিলামের জন্য তৎপর হয়ে উঠেছেন পকেট ভর্তির জন্য।

                   প্রধান শিক্ষকের আসনের  চেয়ার মূল্য-৮০০০ হাজার টাকা।

বিষয়টি খতিয়ে দেখে উক্ত স্কুলের প্রধান শিক্ষক অভয় চন্দ্র বর্মনের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন এলাবাসী।

 

সব সময় আপডেট নিউজ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন- সবুজ বিডি ২৪

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

পীরগঞ্জ তিনটি পরিবার আগুনে পুড়ে ছাই

সৈয়দ রায়হান বিপ্লব, রংপুর, পীরগঞ্জ: পীরগঞ্জ উপজেলার ৯নং পীরগঞ্জ ইউনিয়নের রামপুর গ্রামের মোঃ রুস্তম আলী, ...