Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
Home / ক্রাইম নিউজ / প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা ও বাংলাদেশ ধ্বংসের হুমকি দিচ্ছে রোহিঙ্গারা

প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা ও বাংলাদেশ ধ্বংসের হুমকি দিচ্ছে রোহিঙ্গারা

মাহাবুব, ঢাকা:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, প্রায় ১২ লাখ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে আশ্রয় দেয়ার কারনে যাঁকে মাদার অব হিউম্যানিটি বলছেন সারাবিশ্বের মানুষ, সেই মানবতার মূর্ত প্রতীককে হত্যার হুমকি দিয়ে ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেছে এক রোহিঙ্গা। দামি জামা কাপড় এবং অলঙ্কারে শোভিত অবস্থায় একটি গাড়িতে বসে সেই রোহিঙ্গা যুবক প্রধানমন্ত্রীকে আরাকানি ভাষায় ‘পরিণতি খারাপ হবে’ বলে হুমকি দিয়েছে। একই সাথে বাংলাদেশের যত উঁচু দালানকোঠা স্থাপনা আছে, সবই ধ্বংস করে মাটির সাথে মিশিয়ে দেবে বলে জানায় এই যুবক।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদেরকে মিয়ানমারে নিরাপদ প্রত্যাবাসনের চেষ্টা করে যাচ্ছেন, পাশাপাশি আন্তর্জাতিক সংস্থা এবং বিভিন্ন দেশের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন- যার ফলে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ থেকে দ্রুত চলে যেতে হতে পারে- এটাই মূলত তাদের মাথাব্যাথার কারন, যা যুবকের বক্তব্যে স্পষ্ট।

ভিডিও বার্তায় যুবক বলছে- তাদেরকে (রোহিঙ্গাদেরকে) যেন মজবুর (বাধ্য) করা না হয়। তারা মিয়ানমারের বৌদ্ধ অধিবাসীদের বিরুদ্ধে সংগঠিত হচ্ছে এখানে থেকে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চায় রোহিঙ্গারা। তার কথায় আরসা (আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি) এব আরএসও (রোহিঙ্গা সলিডারিটি অর্গানাইজেশন) নামক জঙ্গি সংগঠনগুলোর বক্তব্য এবং অভিপ্রায় প্রতিফলিত হচ্ছে। সংগঠনগুলোর সাথে আন্তর্র্জাতিক জঙ্গি সংগঠন আইএস এবং আল-কায়দার সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ পুরনো। তারা আরাকান অঞ্চলকে ভিন্ন ধর্মরাষ্ট্র হিসেবে গড়ার প্রত্যয়ে কাজ করছে দীর্ঘদিন ধরে। যদিও এই সংগ্রামকে তারা হকের লড়াই (অধিকার আদায়ের যুদ্ধ) হিসেবে অভিহিত করে।

হুমকিদাতা যুবক, যার পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি এখনও, সে এদেশের মুসলমান সম্প্রদায়কে তাদের প্রতি সহনশীল হওয়ারও আহ্বান জানিয়ে তার ভিডিওতে জানায়, মুসলমান হয়ে যেন তাদের বিরুদ্ধে অবস্থান না নেয়, তাতে পরিণতি ভালো হবে না।

প্রসঙ্গত, রোহিঙ্গাদেরকে মিয়ানমারে ফেরত যাওয়ার বিনিময়ে জনপ্রতি ৬ হাজার ডলার (প্রায় ৫ লাখ টাকা) করে দেয়ার প্রস্তাব করেছিলেন চীন সরকারের এশিয়া বিষয়ক দূত সুন গুঝিয়াং। কিন্তু তাদের সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে রোহিঙ্গারা।আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটসের (এআরএসপিএইচ) মহাসচিব সায়েদ উল্লাহ জানিয়েছেন, ‘চীন সরকারের দূত কুতুপালং শরণার্থী শিবিরে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আলাপ করেছেন। জনপ্রতি ৫ থেকে ৬ হাজার ডলার দিলে আমরা দেশে ফিরে যাব কিনা সে বিষয়ে তিনি জানতে চেয়েছেন’।রাখাইনে ফিরে রোহিঙ্গারা যেন বাড়ি-ঘর তৈরি করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যেতে পারেন সে কারণেই চীনের তরফ থেকে তাদের অর্থ সহায়তার প্রস্তাব দেওয়া হয়। এর উত্তরে এআরএসপিএইচ মহাসচিব সায়েদ উল্লাহ জানান, ‘আমরা তাদের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছি। আমরা কোনভাবেই ওখানে ফিরে যাব না বলে জানিয়েছি।

 

সব সময় আপডেট নিউজ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন- সবুজ বিডি ২৪

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

Upazila Election

বিনা ভোটে নৌকার ১১০ চেয়ারম্যান

অনলাইন ডেস্ক: উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রথম চার ধাপ মিলে বিনা ভোটে চেয়ারম্যান হচ্ছেন নৌকা প্রতীকের ...