সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ০৭:৩৭ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
ক্ষমতা উপভোগের নয়, সেবা করার সুযোগ: প্রধানমন্ত্রী প্রেমে রাজি না হওয়ায় ছাত্রীকে হাতুড়িপেটা কারাগারে পলাশ রায় হত্যা ও প্রবীর শিকদারের পরিবারকে দেশছাড়ার পাঁয়তারার প্রতিবাদে জামালপুরে মানববন্ধন মাদকসক্ত শিক্ষকের হাতে সহকর্মী গুরুতর আহত ইবিতে নিজস্ব অর্থায়নে আইআইইআর-এর নিজস্ব ভবন নির্মাণকাজের উদ্বোধন জামালপুরে নারী ও শিশু ধর্ষন নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন র‌্যাব-১৩ অভিযান পরিচালনা করে ২৪৩৫ পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট, গাঁজা আটক করেছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম টাঙ্গাইলের করটিয়া হাটে ক্রেতা-বিক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল অটোরিকশার তিন যাত্রীর রংপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলো মেট্রোপুলিশ কমিশনার

বঙ্গবন্ধু নিজের গোলা খুলে ধান বিলিয়ে দিতেন- প্রধানমন্ত্রী

ফাইল ছবি।

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জাতির পিতা একটি সুন্দর দেশ গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন। বাংলাদেশের মানুষ একটি উন্নত জীবন পাবে, এটাই তার লক্ষ্য ছিল। কিন্তু সে কাজ তিনি করে যেতে পারেননি। ১৫ আগস্ট তাকে মেরে ফেলা হলো। আমি পরিবার হারালাম, আপনজন হারালাম কিন্তু বাংলাদেশের মানুষ হারিয়েছিল তাদের স্বাধীনতার চেতনা, উন্নত জীবন পাওয়ার সম্ভাবনা।

শনিবার (১৭ মার্চ) দুপুরে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পরিবারের সহযোগীতায় বিরাট হৃদয়ের অধিকারী হয়ে উঠে ছিলেন বঙ্গবন্ধু। এদেশে প্রায়ই দুর্ভিক্ষ লেগে থাকতো নিজের গোলা খুলে দিয়ে ধান বিলিয়ে দিতেন তিনি। আমার দাদা-দাদি কখনও বকাঝকা করেননি। সবসময় তার ভেতরে একটা দানশীল মনোভাব ছিল, মানুষের প্রতি ভালোবাসা ছিল। সেই ভালোবাসার টানেই তিনি আমাদের এই স্বাধীনতা এনে দিয়ে গেছেন। তিনি যেভাবে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ দেখতে চেয়েছিলেন সে লক্ষ্য নিয়েই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

এর আগে, টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকাল ১০টা ১৯ মিনিটে প্রথমে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সৌধের বেদীতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন। এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শ্রদ্ধা জানান।

এসময় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। পরে সেনা-নৌ ও বিমান বাহিনীর একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করেন।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ফাহেতা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী। এ সময় বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধুর পরিবারের নিহত সদস্য, স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত ৩০ লক্ষ শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।

পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগ সভাপতি হিসেবে মন্ত্রী পরিষদের সদস্য ও দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌদ বেদীতে শ্রদ্ধা জানান।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর ছোট বোন শেখ রেহানা, জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার এটিএম ফজলে রাব্বি মিঞা, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি, তোফায়েল আহমেদ, আমির হোসেন আমু, লে.কর্ণেল(অব.)ফারুক খান এমপি, কৃষি মন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক এমপি, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ এমপি, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাসিম, শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি, শেখ সালাউদ্দিন জুয়েল এমপি, শেখ তন্ময়সহ দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

সব সময় আপডেট নিউজ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন- সবুজ বিডি ২৪

সংবাদটি শেয়ার করুন:

© All rights reserved © 2018-2019  Sabuzbd24.Com
Design & Developed BY Sabuzbd24.Com