Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
Home / অন্যান্য / লাইফস্টাইল / সঙ্গী কখন আপনাকে সন্দেহ করে

সঙ্গী কখন আপনাকে সন্দেহ করে

লাইফস্টাইল ডেস্ক :

তিন্নি আর মুরাদের সম্পর্ক তিনবছরের। ক্যাম্পাস জীবনে ঈর্ষণীয় জুটি তারা, পরিবারের দিক থেকেও তাদের সম্পর্ককে নিযে কোনো সমস্যা ছিল না তেমন। কিন্তু কিছুদিন যাবৎ তিন্নির ব্যবহার আচারে কেমন যেন অদ্ভুত এক পরিবর্তন দেখতে পাচ্ছে মুরাদ। সেটা অন্যকেউ বুঝতে পারছে না, তিন্তিকে বললেও সে সেটা উড়িয়েই দিচ্ছে একরকম। অভিযোগও তেমন কিছু না। মুরাদকে এড়িয়ে চলছে, আগের মতো করে সবকিছু শেয়ার করছে না, অন্যমনস্ত থাকছে, কোথাও কোথাও ঘুরতেও যাচ্ছে। এগুলো নিয়ে মুরাদের সন্দেহ, তিন্নি কি তবে তার বাইরে অন্যকিছু ভাবছে?

সম্পর্কের ভিত নড়িয়ে দিতে এই অভিযোগগুলোই যথেষ্ট। সম্পর্ক গড়তে না যতো সহজ, টিকিয়ে রাখা অনেক বেশি কঠিন। মাঝখানে এমন কিছু ঘটে বা তৃতীয়পক্ষের আগমন ঘটে- যখন সম্পর্ককে ধরে রাখা বেশ মুশকিল হয়ে যায়। কি এমন করলে সঙ্গী আপনাকে সন্দেহ করবে, এটাও জেনে রাখা ভালো।

কখন সন্দেহ হয়

সাম্প্রতিক সময়ে আপনি হয়তো একটু বদলে গেলেন, পরিবর্তনগুলো আপনার সঙ্গীর চোখে পড়বেই। বেশ কিছুদিন ধরে আপনার কথাবার্তা, ভাবভঙ্গি, বডি ল্যাঙ্গুয়েজ যদি তার কাছে কিছুটা এলোমেলো মনে হয় তবে সে আপনাকে কিছুটা নজরে রাখতে পারে। সম্পর্কের মাঝখানে আপনি যদি কিছুটা অমনোযোগী হয়ে পড়েন তাহলে সঙ্গীর মনে হবে যে আপনি কি তবে একটু গা-ছাড়া ব্যবহার করছেন! আপনাদের জীবনে কি তৃতীয়পক্ষের অনুপ্রবেশ ঘটেছে!

আজকাল তো সবার হাতে হাতে কারণে অকারণে ফোন থাকছেই। আর ফোন থাকা মানে সামাজিক মাধ্যমে এটেসেটে থাকা। আপনারা দুজন কোথাও নিজেদের মতো করে বের হলেন। কিনউত আপনার মন আর চোখ আটকে থাকলো ফোনটির মধ্যে। আপনার হয়তো মাঝেমাঝে ফোন আসছে, আপনাকে কেউ টেক্সট করছে- এমন সময়ে আপনার সঙ্গী ভাবতেই পারে যে ফোনের মধ্যে এত কি! আপনি হয়ত বন্ধু বা পরিচিত কারো সঙ্গেই কথা বলছিলেন, তাও আপনার ওপর তার সন্দেহ আসতেই পারে। তাই একটু সাবধান হন।

আপনার সঙ্গী হয়ত বেশ ব্যস্ত, আপনাকে একটু কমই সময় দিতে পারে। আপনি তাতে মন খারাপ করেন, অভিযোগ করেন। কিন্তু সেই সুযোগে আপনি হয়ত আপনার ছেলে বা মেয়ে বন্ধুদের সঙ্গে চুটিয়ে সময় কাটাচ্ছেন, সিনেমা দেখতে যাচ্ছেন, শপিং করছেন ইচ্ছেমতো। তখন আপনাকে সঙ্গী প্রশ্ন করতেই পারে যে তার অবর্তমানে আপনি অন্যকিছু ভাবছেন না তো? সে সময় দিতে পারছে না বলে আপনি কি অন্যদিকে ঝুকছেন? এ প্রশ্ন তার মনে আসতেই পারে। অবসর সময়টা তিনি আপনার সঙ্গেই কাটাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু আপনি ব্যস্ত অন্যদিকে, এমন সময় সে তো আপনাকে একটু সন্দেহের চোখে দেখবেই।

এতো পজেসিভ হওয়ার কিছু হয়নি, তুমি শুধু শুধুই সন্দেহ করছো- এই বাক্যটিই কেমন যেন সন্দেহজনক, অন্তত সম্পর্কের ক্ষেত্রে। এই বিষয়টি কি আপনিও প্রায়ই আপনার সঙ্গীটিকে বোঝানোর চেষ্টা করেন? নতুন কারো সঙ্গে ঘুরছেন বা সময় দিচ্ছেন, এটা তার চোখে ভালো নাই লাগতে পারে। এই পরিস্থিতি কাটাতে আপনি যখন সাফাই দিতে চেষ্টা করবেন, তখন একটু সন্দেহের উদ্রেক হয় ঠিকই। আপনাকে স্বাধীনতা দিতেও তার হয়ত ভাবতে হবে।

দুজনের মধ্যে কথাবার্তা ধরুন হুট করেই কমে গেলো। সম্পর্ক বা বৈবাহিক জীবনের বয়স বেশি হতে থাকলে আপনাদের মধ্যে কখনো কখনো একটু দুরত্ব চলে আসে। আপনি হয়ত সঙ্গীর প্রতি একটু কম আগ্রহ পাচ্ছেন, আগের মতো খোঁজ নিচ্ছেন না, চিন্তা করছেন না, ঝগড়াও বেশি হচ্ছে- এমতাবস্থায় সঙ্গী হয়ত ভাববে আপনি হঠাৎি এমন হলেন কেন? কোনো সমস্যাই হলো কি না!

একটা সময়ে একে অপরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতাও কমে যেতে পারে। সম্পর্ক মানে তো একটা অভ্যাস। সেই অভ্যাসে খুব বেশি অভ্যস্ত হয়ে গেলে পরে একটু ঘনিষ্ঠ ভাবটা কমে যেতে পারে। এ থেকে তৈরি হতে পারে অবহেলা। এই ব্যাপরগুলোও আপনার সঙ্গীকে ভাবায় যে আপনি বুঝি তাকে আগের মতো চাচ্ছেন না, আপনি হয়ত অন্য কাউকে নিয়ে ভাবছেন।

আপনার মধ্যে হঠাৎ করে যদি স্বেচ্ছাচারিতা চলে আসে তাহলে বিপদ। ধরুন আপনি সঙ্গীর তোয়াক্কা না করে হুটহাট এদিক ওদিক চলে যাচ্ছেন, যা মন চাচ্ছে করছেন, তার অনুমতি বা পরামর্শ নিচ্ছেন না- এই অবস্থায় সে সম্পর্কটিকে অন্যভাবে দেখবে। সে নিজে অপমানিত হতে পারে। আপনাকেও অন্যভাবে সন্দেহ করতে পারে।

সব সময় আপডেট নিউজ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন- সবুজ বিডি ২৪

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

যে কারণে কালো ছেলেদের ভালোবাসে সুন্দরীরা

লাইফস্টাইল ডেস্ক: জানলে সত্যি অবাক হবেন যে, বেশিরভাগ সুন্দরী মেয়েই নাকি কালো ছেলেদের পছন্দ করে ...