Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
Home / রাজনীতি / জামায়াতের অভিসন্ধি বোঝার অপেক্ষায় আওয়ামী লীগ
ফাইল ছবি।

জামায়াতের অভিসন্ধি বোঝার অপেক্ষায় আওয়ামী লীগ

অনলাইন ডেস্কঃ

দীর্ঘদিন আলোচনার বাহিরে থাকা দেশের ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর অন্যতম সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক দল থেকে পদত্যাগ করেছেন। তার পদত্যাগের একদিন পরই জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য মজিবুর রহমান মনজুকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। ফলে হঠাৎ করেই আলোচনার জন্ম দিয়েছে মুক্তিযুদ্ধে বিতর্কিত ভূমিকায় থাকা রাজনৈতিক দলটি। তবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বিষয়টিকে তাদের রাজনৈতিক অপকৌশল হিসেবে দেখছে।

আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা মনে করছেন, যুদ্ধাপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগে জামায়েতের শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের সাজা ও চলমান বিচার প্রক্রিয়ার কারণে সাংগঠনিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েছে দলটি। ফলে নতুনভাবে তাদের কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য তারা বিভিন্ন ধরণের কৌশল গ্রহণ করতে পারে। সম্প্রতি তাদের দলের এক শীর্ষ নেতার পদত্যাগ, মহান মুক্তিযুদ্ধে বিতর্কিত ভূমিকার জন্য জাতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনা এবং দলের নতুন নাম করণের বিষয়টি তাদের রাজনৈতিক কৌশল হতে পারে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ জার্নালের সাথে কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম। তিনি বলেন, তাদের কর্মকাণ্ডই তো বলে দেয় তারা অপরাজনীতি করে, ভ্রান্ত রাজনীতি করে। এটা তাদের অপরাজনীতির অপকৌশল কিনা সেটা সময় বলে দিবে।

আওয়ামী লীগের এ সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, জামাত ইসলাম তো দেশের জন্য জনগণের জন্য রাজনীতি করে না। এরা ধর্মকে ব্যবহার করে রাজনীতি করে এবং অপরাজনীতিই তাদের একমাত্র লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। তারা অপরাজনীতির কোন অপকৌশল ব্যবহার করে দেশের মানুষকে যাতে বিভ্রান্ত না করতে পারে সে বিষয়ে আমাদেরকে সতর্ক থাকতে হবে।

সম্প্রতি দল বিলুপ্ত এবং ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে ভূমিকার জন্য জাতির কাছে আন্তরিকভাবে ক্ষমা চাওয়ার পরামর্শ দিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী থেকে পদত্যাগ করেছেন দলটির সহকারি সেক্রেটারী জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাক। বিবিসি তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, জামায়াতের আমীর মকবুল আহমদকে পদত্যাগপত্র পাঠিয়েছেন তিনি। পদত্যাগের কারণ হিসেবে তিনি ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় জামায়াতের ভূমিকাকেই সামনে এনেছেন।

পদত্যাগপত্রে রাজ্জাক বলেছেন, তিনি দুই দশক ধরে দলের শীর্ষ নেতাদের বোঝাতে চেয়েছেন যে, জামায়াত যেন একাত্তরের ভূমিকার জন্য জাতির কাছ ক্ষমা চায়। কিন্তু স্বাধীনতার চার দশক পরও জামায়াত সেটি করেনি। পদত্যাগপত্রে ব্যারিস্টার রাজ্জাক উল্লেখ করেছেন, স্বাধীনতায় বিরোধিতার জন্য তিনি জামায়াতকে বিলুপ্ত করে দেয়ারও প্রস্তাব করেছিলেন দলীয় ফোরামে। কিন্তু জামায়াত সেটি করেনি।

জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাকের দল থেকে পদত্যাগের বিষয়ে তার বক্তব্যকে স্বাগত জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, পদত্যাগকালে ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক যেসব কথা বলেছেন সেগুলোকে স্বাগত জানাই। তবে আব্দুর রাজ্জাকের বলা ওসব কথার উদ্দেশ্য বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এদিকে ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক জামায়েত থেকে পদত্যাগের একদিন পরই জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য মজিবুর রহমান মনজুকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। মজিবুর রহমান নিজেই আজ শনিবার তার ফেসবুক পেজে পোস্ট দিয়ে বহিষ্কারের বিষয়টি জানিয়েছেন।

জামায়েত ইসলামীর শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের পদত্যাগ ও বহিষ্কারকে সাজানো বলে মনে করছেন আওয়ামী লীগের নেতারা। তারা মনে করেন, দীর্ঘ মেয়াদী রাজনৈতিক পরিকল্পনার অংশ হিসেবে জামায়েত ইসলাম ও তাদের নেতারা এই ধরণের সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, এটা তাদের সুদূর প্রসারী অপরাজনীতি করার একটি অপকৌশল হিসেবে এই ধরণের পদত্যাগ এবং বহিষ্কারের নাটক করছে। কেউটে সাপগুলোকে বিশ্বাস করার কোন কারণ নেই।

সব সময় আপডেট নিউজ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন- সবুজ বিডি ২৪

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সরকারের সদিচ্ছার কারণেই মুক্তি পাচ্ছেন না খালেদা- ডা. জাহিদ

নিজস্ব প্রতিনিধি: সরকারের সদিচ্ছার কারণেই বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পাচ্ছেন না বলে অভিয়োগ ...